স্ত্রী ছেড়ে চলে যাওয়ায় ভিডিও লাইভ স্ট্রিম করে সাপের ছোবল খেয়ে আত্মঘাতী চিডিয়াখানার প্রাক্তন কর্মী

স্ত্রী ছেড়ে চলে গিয়েছেন। এই দুঃখে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে সরাসরি সম্প্রচার করে আত্মঘাতী হলেন রাশিয়ার এক সর্পবিশেষজ্ঞ। পোষা ব্ল্যাক মাম্বার কামড় খেলেন আর্সলান ভালিভ নামে চিড়িয়াখানার প্রাক্তন ওই কর্মী। লাইভ স্ট্রিমে দর্শকদের দেখালেন, সাপ কামড় বসাচ্ছে তাঁর হাতে।
গত ২১ সেপ্টেম্বর এর আগের একটি ভিডিও-তে স্ত্রী এক্যাটারিনা ‘কাটিয়া’ প্যাটিঝকিনারর সঙ্গে বিচ্ছেদের ঘটনায় নিজের দুঃখের কথা জানিয়েছিলেন। আরসলান তাঁর স্ত্রীকে মারধর করেছিলেন বলে অভিযোগ।

এরপরই চরম পদক্ষেপ নিলেন আরসলান। ভিডিও লাইভ স্ট্রিম করে দর্শকদের তিনি বলেন, ‘এই খবর কাটিয়াকে দিও। বোল যে, আমি ওকে খুব ভালোবাসি।
এরপর ধীরে ধীরে আরসলান ক্যামেরার দিকে সাপের কামড় ছোবল বসানো হাত বাড়িয়ে দেন।তিনি বলেন, খুব সুন্দর, না? ওহ্, এটা কেমন…বিশ্বাস করতে পারছি না যে এটা আমার সঙ্গে ঘটছে’।

স্ত্রীর ফোন নম্বরও জানিয়ে দেন তিনি। তার আগে আরসলান বলেন, ‘আমি মরে যাচ্ছি, বিদায়। কাটিয়াকে একবার দেখতে পেলে ভালো লাগত। আরে, আমি কাঁপছি’।
ভিডিওয়ে আরসলানের শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হতে দেখা যায়। তাঁর শ্বাসপ্রশ্বাস দ্রুত হয় এবং চোখ লাল হয়ে যায়। চোখের তারা ঘুরতে থাকে। হাতটা প্রায় অবশ হয়ে যায়।
এক দর্শক অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেন। আরসলানের বাড়িতে পৌঁছে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু তাঁকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ ঘটনা জানানো হয়েছে।
জানা গেছে, চলতি মাসের গোড়ায় আরসলান প্রকাশ্যে স্ত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। আরসালান মারধর করার পর তাঁর স্ত্রী বিবাহবিচ্ছেদ করেন। নতুন এক সম্পর্কে জড়িয়েছেন আরসলানের প্রাক্তন স্ত্রী।
আরসলানের এক বন্ধু অনলাইন পোস্টে দাবি করেছেন, ভুলবশতই পুরো ঘটনাটি ঘটেছে। আরসলান আত্মহত্যা করতে চাননি।

460 total views, 2 views today

Leave a Reply

সর্বশেষ সংবাদ