ভুয়া এনজিও কর্তৃক গ্রাহকের দেড়কোটি টাকা নিয়ে উধাও হওয়ার বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে

গৌরনদী প্রতিনিধিঃ
বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ২০ থেকে ২৫টি গ্রামের কয়েক হাজার গ্রাহকের দেড় কোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে আল-মদিনা ইসলামী সঞ্চয় ও ঋণদান কো-অপারেটিভ লিমিটেড নামের একটি সংস্থা। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর আদালতের নির্দেশে গত সোমবার থেকে ওই সংস্থার প্রতারনার ফাঁদে পরে নিঃস্ব হওয়া কয়েক শত নারী পুরুষের স্বাক্ষ্য গ্রহন শুরু করেছেন গৌরনদী উপজেলা সমবায় অফিসার এসএম ফরিদ আহম্মেদ।
জানাগেছে, ২০০৯ সালে গৌরনদীতে আল-মদিনা ইসলামী সঞ্চয় ও ঋণদান কো-অপারেটিভ লিমিটেড নামের একটি সংস্থার আত্মপ্রকাশ ঘটে। উপজেলার পিঙ্গলাকাঠি বন্দরে একটি ভবন ভাড়া নিয়ে কলাবাড়ীয়া, পিঙ্গলাকাঠি, শংকরপাশা, বাহাদুরপুর, দক্ষিণবাহাদুরপুর, কালনা, দিয়াসুর, চরদিয়াসুর, চররমজানপুর, লেবুতলী, হোসনাবাদ, সরিকল, কান্ডপাশা, নলচিড়া, খানাবাড়ী, কুতুবপুর, মিয়ারচর, শরিকল, সাকোকাঠি, শাহজিরাসহ ২০ থেকে ২৫টি গ্রামের গরীব ও অসহয়ায় নারী পুরুষদের অধিক মুনাফার লোভ দেখিয়ে নিয়ে তাদের টাকা-পয়সা হাতিয়ে নেয়। ৬মাস আগে তারা হঠাৎ করে পিংগলাকাঠির অফিস গুটিয়ে আতœগোপন করে। একারণে দিশেহারা হয়ে পরেছেন গ্রাহকরা।
খবর নিয়ে জানাগেছে, ওই সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হচ্ছেন পিরোজপুর জেলার মঠবাড়ীয়া উপজেলার তাফাল বাড়ীয়া গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিম মুন্সির পুত্র চৌধুরী মুহাঃ শহিদুল ইসলাম আজাদী। তার ১ম স্ত্রী বেগম খাদিজা আজাদী হচ্ছেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ২য় স্ত্রী সৈয়দা ইসরাত জাহান সহ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও তার পুত্র এসএম হামিদুল ইসলাম আজাদী সহকারী পরিচালক, এসএম সহিদুল ইসলাম সংস্থার দাপ্তরিক কর্মকর্তা । এছাড়া অন্যান্যরা হলেন তার আত্মীয় স্বজন। তাদের প্রধান কার্যালয় স্থাপন করেন বরিশালের রুপাতলীর হাইস্কুল সড়কে। অফিসের নাম দেয়া হয় মদিনা ভবন। বর্তমানে ওই অফিসটিও বন্ধ রয়েছে। নিরুপায় হয়ে আল-মদিনা ইসলামী সঞ্চয় ও ঋণদান কো-অপারেটিভ লিমিটেড এর গৌরনদীর পিংগলাকাঠি অফিসের ম্যানেজার মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন গ্রাহকদের পক্ষ হয়ে গত ২২ জুন বরিশাল চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চৌধুরী মুহাঃ শহিদুল ইসলাম আজাদী, ১ম স্ত্রী বেগম খাদিজা আজাদী,২য় স্ত্রী সৈয়দা ইসরাত জাহান, পুত্র এসএম হামিদুল ইসলাম আজাদী ও এসএম সহিদুল ইসলামকে আসামী করে প্রতারনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে সমন জারী করেন। মামলার তদন্তভার অর্পন করা হয়ছে গৌরনদী উপজেলার সমবায় অফিসার এসএম ফরিদ আহম্মেদের ওপর।

600 total views, 2 views today

Leave a Reply

সর্বশেষ সংবাদ