নগরউন্নয়নের কাজ বন্ধ করে হুজুর মাসুদ বাহিনীর হামলার স্বীকার বিসিসি’র রুবেল সহ কয়েক দিনমজুর শ্রমিক.

এম.এস.আই লিমনঃ

রাজনৈতিক অপকৌশলের ফাঁদে ফেলতে বিভিন্নপন্থায় মেয়র কামালের পিছু চলছে ঘোড় ষড়যন্ত্র! ক্ষমতাসীন আঃলীগ সরকারের ক্ষমতাআমলেও রাজনৈতিক কর্মদক্ষতাগুনে ক্ষমতার প্রায় শেষ পর্যন্ত তিনিই একমাত্র বিএনপি পন্থী হওয়ায় নগরমনে রটছে এ বার্তা। অপরদিকে বরিশাল বিএনপি’র অধিকাংশ আগামী সিটি নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী থাকার তালিকাভূক্তরা টেনশনে পরেছে প্রায় নিশ্চিত ধানের শীষের প্রতিকে মেয়র পদে মনোনীত পুনরায় কামালের নাম উঠে আসাতে। ফলে তার অপপ্রচার শেষ চেষ্টার নানা জ্বালে ফাসানোর পায়তারায় কতিপয়রা বলে জানা গেছে।এর ন্যায় সম্প্রতি বিসিসি’র নগর উন্নয়ন মূলক কাজ হাটখোলা ড্রেন নির্মানের সময় কাজ বন্ধ করে কতিপয়দের ইশারায় মেসার্স হাওলাদার আয়রণ ষ্টোর্সের মালিক মাসুদ হাওলাদার ওরফে হুজুর মাসুদ অর্থের প্রলভোনে আর অদৃশ কতিপয়দের ইশারায় নগরসেবার কাজ বন্ধ করে কার্য্যসহকারী মোঃতরিকুল ইসলামের গলা চেপে ধরে শ্রমিকদের বাঁশ দিয়ে মারধর করেছে। বিসিসি’র উন্নয়ন মূলক চলমান নগরসেবা কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটিয়ে সিটি মেয়রের ঘাড়ে দোষ চাপানো কৌশল মাত্র। এবিষয়ে সিটি মেয়র আহসান হাবীব কামাল বরাবর অভিযোগ প্রদান করেছে বিসিসি’র কর্তব্যরত কার্যসহকারী মোঃতরিকুল ইসলাম রুবেল সহ হামলার স্বীকার শ্রমিকরা। সূত্রমতে, গত রবিবার নগরীর হাটখোলা রোডস্থ কশাই খানা সংলগ্ন বিসিসি’র নগর সেবায় ড্রেন নির্মান কাজ চলাকালীন সময়ে কাজে বাধা প্রদান করে স্থানীয় হাজী কোব্বাত আলী হাওলাদের বড় ছেলে সকাল সাড়ে ১১ টায় নাগাত সময়ে। সে সময় বিসিসি’র দায়িত্বরত উপস্থিত কার্যসহকারী উপরোস্থ কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলতে বললে তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে কাজ বন্ধ করার হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে তার ভাই মাসুদ হাওলাদার ওরফে হুজুর মাসুদ হঠাৎ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তেড়ে আসে ও কার্যসহকারির উপর হামলা করে। লাথি ঘুষি এবং শ্বাস রোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা চেপে ধরে হুমকি প্রদান করে তার সাথে আগে যোগাযোগ না করে কোন মতেই কাজ করতে পারবে না। সে সময় কাজ করা শ্রমিকরা তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাদের বাঁশ দিয়ে এলোপাথারি মারধর করে। এতে করে বিসিসি’র কার্যসহকারী সহ ঠিকাদারের সুপারভাইজার মাহমুদুর রহমান,দিন মজুরীর শ্রমিক জাহাঙ্গির সহ বেশ কয়েকজন তাদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা নিয়ে রবিবার দুপুর আড়াইটা নাগাত বিসিসি’র নগর ভবনে এর সুস্ঠ বিচারের দাবী জানিয়ে মেয়র বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। সংশ্লিষ্ট কাজের দায়িত্বরত বিসিসি’র উপ সহকারী প্রকৌশলী আহসান হাবীব জানায়, তিনি ঘটনা শুনে তার উর্ধতন কতৃপক্ষদের অবহিত করেছেন। নগরসেবায় বাধা প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এবিষয়ে ঠিকাদার আলতাফ হাজী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য হামলা এবং উন্নয়ন মূলক কাজে বাধা প্রদান করার ব্যক্তিদের মামলা দেয়ার পস্তুতি নিচ্ছে। বিসিসি’র প্রধান নির্বাহী নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান জানায় অভিযোগের পেক্ষিতে প্রধান প্রকৌশলীকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা প্রদান করেছে। সিটি মেয়র আহসান হাবীব কামাল প্রতিবেদকের সাথে বলেন নগরসেবা সর্বাত্মক ভাবেই দিয়ে আসছে তিনি। আগামি সিটি নির্বাচনে নগরবাসী চাইলে তিনি চমকপ্রদো উন্নয়ন দিয়ে পরিবেশবান্ধব নগরী গড়বেন। এ পরিকল্পনা তিনি অবশ্যই বাস্তবায়ন করবেন নগরীর ও নগরবাসীদের স্বার্থেই।এবার ইচ্ছে প্রকল্প থাকা সত্বেও অনেক কাজ করতে পারেন নি তবে কেন প্রকাশ্য তার বক্তব্যে না থাকলেও জনমনে বোঝার বাকী নেই। তিনি আরো বলেন এশিয়া সিটি মেয়র এ্যাসোসিওশনে আয়োজিত সভায় উপস্থিত থাকার উদ্দেশ্যে শ্রীলঙ্কা সফরে যাচ্ছেন তিনি সভাপতি হিসেবে যোগদান করতে সপ্তাহের জন্য।তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে তিনি অবহিত করেছেন কার্য্যসহকারীকে মারধর এবং উন্নয়নের কাজ বন্ধ করে দেবার পেছনে ব্যক্তিস্বার্থপরতায়নতা রয়েছে এই মর্মে । নগর উন্নয়ন কাজে বাধা সৃস্টি করে জনমন ও সংগঠনের কাছে তার বদনাম রটানোর কূট কৌশল কতিপয়দের কখনই সফল হবে না। নগরউন্নয়ন নগরবাসীর জন্য যারা উন্নয়ন মূলক কাজ বন্ধ করে তারা নগরবাসীর ক্ষতি করছে তারা কখনই নগরমনে স্থান পাবে না। নগরবাসী সচেতন তারা উদ্দেশ্য মূলক এসকল কর্মকান্ডের প্রচয় দিবে না। তিনি আরো জানান আইনানুগ ব্যবস্থা ইতো মধ্য গ্রহন করেছেন তারা। প্রসাশন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমে বাধা প্রদান কারী ও কার্য্যসহকারী সহ শ্রমিকউপর সন্ত্রাসী হামলাকারীদের খুঁজছে ব্যবস্থা নিতে। এমন বাধা বিপত্তি দিয়ে তাদের কোন ফায়দা হবে না নগরউন্নয়ন নগরবাসীদের স্বার্থে তিনি করে যাবেন।

566 total views, 4 views today

Leave a Reply

সর্বশেষ সংবাদ