বামনায় উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হত্যা মামলায় কারাগারে

জেলা প্রশাসকের স্প্রীডবোড চালক বামনা উপজেলার সফিপুর গ্রামের জব্বার খান হত্যা মামলার চারর্শীটভ‚ক্ত ১২ নম্বর আসামী উপজেলার যুবলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম সরোয়ারকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। সোমবার সকালে বরগুনা কোর্টে হাজিরা দিতে গেলে অতিরিক্ত জেলা জজ আদালতের বিচারীক হাকিম এ.ই.এম ইসমাইল হোসেন তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সাইফুল ইসলাম সরোয়ার বামনা উপজেলার পূর্ব সফিপুর গ্রামের মৃত রশীদ হাওলাদারের ছোট ছেলে।

আদালত সুত্রে জানাগেছে,বরগুনা জেলা প্রশাসন দপ্তরের নৌযান চালক হিসেবে অবসরে যাওয়া জব্বার খানকে ২০১৪ সালের ৮ই অক্টোবর রাতে বামনা সদর থেকে বাড়ী যাওয়ার সময় বেগম ফায়জুন্নেসা মহিলা ডিগ্রী কলেজের পিছনে উৎপেতে থাকা অজ্ঞাত এক দল দূর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় জনতা সংজ্ঞাহীন অবস্থায় জব্বার খানকে উদ্ধার করে বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখানে নেওয়ার পর তাঁর মুত্যু হয়।

এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের ছেলে নেসার উদ্দিন বাদী হয়ে প্রথমে ৪ জনকে আসামী করে বামনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে মামলাটি ডিবি পুলিশের হাতে হস্তান্তর করা হয়। তদন্ত শেষে ডিবি পুলিশ বামনা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম সরোয়ারসহ ১২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করে।

129 total views, 3 views today

সর্বশেষ সংবাদ